বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে JOB NEWS 2021

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের নিম্নবর্ণিত 20 তম গ্রেডের পদ সমূহের সরাসরি নিয়োগের জন্য বাংলাদেশী নাগরিকদের নিকট হতে নিচের শর্ত সাপেক্ষে নির্ধারিত ফরমে অনলাইনে আবেদন করার জন্য আহবান করা যাচ্ছে



পদের নামঃ অফিস সহায়ক
পদের সংখ্যাঃ ৩৭(সাঁইত্রিশ)টি
বেতন স্কেলঃ ৮,২৫০-২০,০১০/-
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ কোন অনুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হইতে অন্ন এস.এস.সি পাস। তবে এই তফসিল জারির পূর্বে জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে কর্মরত দৈনিক ভিত্তিক সাংবাত্সরিক কর্মচারীদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যােগ্যতা অষ্টম শ্রেণী পাস।

পদের নামঃ অফিস সহায়ক কাম চাবিরক্ষক।
পদের সংখ্যাঃ ৩(তিন)টি
বেতন স্কেলঃ ৮,২৫০-২০,০১০/-
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ কোন অনুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হইতে অন্ন এস.এস.সি পাস। তবে এই তফসিল জারির পূর্বে | জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে কর্মরত দৈনিক ভিত্তিক সাংবাৎসরিক কর্মচারীদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যােগ্যতা অষ্টম শ্রেণী পাস


পদের নামঃ সহকারী ডেসপাস রাইডার
পদের সংখ্যাঃ ৬(ছয়)টি
বেতন স্কেলঃ ৮,২৫০-২০,০১০/-
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ কোন অনুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হইতে অন্ন এস এস সি পাস। তবে এই তফসিল জারির পূর্বে | জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে কর্মরত দৈনিক ভিত্তিক সাংবাৎসরিক কর্মচারীদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যােগ্যতা অষ্টম শ্রেণী পাস  মটর সাইকেল চালনায় বাস্তব অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।


পদের নামঃ  কামরা পরিচারক/পরিচারিকা
পদের সংখ্যাঃ ১২(বার)টি
বেতন স্কেলঃ ৮,২৫০-২০,০১০/-
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ কোন অনুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হইতে অন্ন এস.এস.সি পাস। তবে এই তফসিল জারির পূর্বে | জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে কর্মরত দৈনিক ভিত্তিক সাংবাৎসরিক কর্মচারীদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যােগ্যতা অষ্টম শ্রেণী পাস।


পদের নামঃ নিরাপত্তা প্রহরী
পদের সংখ্যাঃ ১৮(আঠার)টি
বেতন স্কেলঃ ৮,২৫০-২০,০১০/-
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ কোন অনুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হইতে অন্যূন অষ্টম শ্রেণী পাস। শারীরিকভাবে উপযুক্ত হতে হবে।

পদের নামঃ পরিচ্ছন্নতা কর্মী (পূর্বনাম ঝাড়ুদার)
পদের সংখ্যাঃ ৯(নয়)টি
বেতন স্কেলঃ ৮,২৫০-২০,০১০/-
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ 
অন্যান্য যোগ্যতাঃ পেশাদার পরিচ্ছন্নতা কর্মী (ঝাড়ুদার) হতে হবে

যে সকল জেলার প্রার্থীদের আবেদন করার প্রয়ােজন: মুন্সীগঞ্জ, নরসিংদী, | গােপালগঞ্জ, মাদারীপুর, শরিয়তপুর, জামালপুর, লক্ষীপুর, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, নাটোর, গাইবান্ধা, ঠাকুরগাঁও,

খুলনা, ঝিনাইদহ, বাগেরহাট, বরিশাল, | ঝালকাঠি, পিরােজপুর জেলার প্রার্থীদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই। তবে এতিম, শারীরিক প্রতিবন্ধী কোটায় সকল জেলার প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন।



কোন ব্যক্তিকে জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের দৈনিক ভিত্তিক সাংবাত্সরিক কোন পদে নিয়ােগ করা হয়ে থাকলে উল্লিখিত ব্যক্তির সাংবাৎসরিক ভিত্তিতে নিযুক্তকালীন কার্যকালের জন্য তার যােগ্যতা সাপেক্ষে সংসদ সচিবালয়ের কোন শূণ্য পদে সরাসরি নিয়ােগের ক্ষেত্রে তফসিলে বর্ণিত সর্বোচ্চ বয়ঃসীমা শিথিল করা যেতে পারে।
অনলাইন আবেদনপত্রের নির্ধারিত স্থানে প্রিভিলেইজড কর্মচারী হিসেবে নিয়ােগের তারিখ ও স্মারক নম্বর উল্লেখ করতে হবে। অন্যথায় আবেদন গ্রহণযােগ্য হবে না। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত পদের জন্য যে শিক্ষাগত যােগ্যতা চাওয়া হয়েছে, কোন প্রার্থী আবেদনপত্র দাখিল করার পূর্বে চাহিত শিক্ষাগত যােগ্যতার অতিরিক্ত শিক্ষাগত যােগ্যতা অর্জন করে থাকলে তা দাখিলকৃত আবেদনপত্রে উল্লেখ করতে হবে, অন্যথায় নিয়ােগ প্রাপ্তির পর অতিরিক্ত সনদপত্র গ্রহণযােগ্য হবে না।
লিখিত, মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কোন প্রকার টিএ/ডিএ প্রদান করা হবে না। মৌখিক পরীক্ষার সময় সংশ্লিষ্ট সকল শিক্ষাগত সনদ/অভিজ্ঞতার সনদ/কোটার সনদ বা প্রমাণপত্র, জাতীয় পরিচয়পত্র, লাইসেন্স এর মূল কপি প্রদর্শন করতে হবে এবং পূরণকৃত Application Form সহ আবেদনে দাখিলকৃত সকল সনদ এবং প্রবেশপত্রসহ সত্যায়িত একসেট ফটোকপি দাখিল করতে হবে। এছাড়া জেলার স্থায়ী বাসিন্দার প্রমাণ হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা/সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক প্রদত্ত সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি এবং আবেদনকারী বীর মুক্তিযােদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা হলে আবেদনকারী যে বীর মুক্তিযােদ্ধা/শহীদ বীর মুক্তিযােদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা এ মর্মে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর/পৌরসভার মেয়র/কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত সনদের সতায়িত ফটোকপি দাখিল করতে হবে।
সাংবাৎসরিক/প্রিভিলেইজ কর্মচারী হিসেবে নিয়ােগ পেয়ে থাকলে প্রমাণ হিসেবে নিয়ােগপত্র দাখিল করতে হবে। এক জেলার স্থায়ী বাসিন্দা অন্য জেলার বাসিন্দা হিসেবে আবেদন করতে পারবেন না। উল্লেখ করা হয়নি এমন ক্ষেত্রে সরকারের সর্বশেষ জারিকৃত বিধি-বিধান প্রযােজ্য হবে। প্রার্থীর যােগ্যতা যাচাই; প্রার্থী কর্তৃক প্রদত্ত কোন তথ্য বা দাখিলকৃত কাগজপত্র জাল, মিথ্যা বা বিজ্ঞপ্তিতে চাওয়া নূন্যতম শর্তের সাথে গরমিল/অসামঞ্জস্য পাওয়া গেলে/ ভূয়া প্রমাণিত হলে কিংবা পরীক্ষায় নকল বা অসদুপায় অবলম্বন করলে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল করা হবে এবং তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
ভূল তথ্য/জাল কাগজপত্র প্রদর্শিত হলে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ যে কোন প্রার্থীর প্রার্থীতা পরীক্ষা চলাকালীন অথবা পরবর্তিতে যে কোন সময়ে বাতিল করার ক্ষমতা কর্তৃপক্ষ
সংরক্ষণ করেন। ঠ. নিয়ােগকারী কর্তৃপক্ষ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত পদের সংখ্যা হ্রাস/বৃদ্ধি এমনকি বিজ্ঞপ্তি বাতিল করার অধিকার সংরক্ষণ করেন।
Online-এ আবেদনপত্র পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমাদান শুরুর তারিখ ও সময় ১০-০৩-২০২১ খ্রিঃ সকাল ১০.০০ টা।
Online এ আবেদনপত্র জমাদানের শেষ তারিখ ও সময় ০৯-০৪-২০২১খ্রিঃ বিকাল ৫.০০ টা।
Online আবেদনপত্রে প্রার্থী তার রঙ্গিন ছবি (দৈর্ঘ্য ৩০০ x প্রস্থ ৩০০ pixel) এবং স্বাক্ষর (দৈর্ঘ্য ৩০০ x প্রস্থ ৮০ pixel) স্ক্যান করে নির্ধারিত স্থানে upload করবেন। ছবির সাইজ সর্বোচ্চ 100 KB ও স্বাক্ষরের সাইজ সর্বোচ্চ 60 KB হতে হবে। | Online আবেদনপত্রে পূরণকৃত তথ্যই যেহেতু পরবর্তী সকল কার্যক্রমে ব্যবহৃত হবে, সেহেতু Online-এ আবেদনপত্র Submit
করার পূর্বেই পূরণকৃত সকল তথ্যের সঠিকতা সম্পর্কে প্রার্থী নিজে শতভাগ নিশ্চিত হবেন।
প্রার্থী Online-এ পূরণকৃত আবেদনপত্রের একটি রঙ্গিন প্রিন্ট কপি পরীক্ষা সংক্রান্ত যে কোন প্রয়ােজনে সহায়ক হিসেবে সংরক্ষণ করবেন এবং মৌখিক/ব্যবহারিক পরীক্ষার সময় এক কপি জমা দিবেন।

No comments

Theme images by chuwy. Powered by Blogger.