> বৈদ্যুতিক স্থাপনার ধারণা - Understand the Concepts of Electrical Installation - BD Blogger

বৈদ্যুতিক স্থাপনার ধারণা - Understand the Concepts of Electrical Installation

যে স্থাপনায় বিভিন্ন ধরনের বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতিকে ব্যবহার উপযােগী করার জন্য ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি ও জেনারেটর, Transformer, ও আনুষঙ্গিক যন্ত্রপাতি স্থাপন, নির্মাণ, বসানাে, সাজানাে ও প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে এ কর্মক্ষম করা হলে তাকে বৈদ্যুতিক স্থাপনা বলে । বৈদ্যুতিক স্থাপনায় বিভিন্ন ধরনের বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি কমরত সহ থাকে বৈদ্যুতিক শক্তির সুষ্ঠু ব্যবহারের লক্ষ্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন, বিতরণ, পরিবহন, ভােল্টেজের পরিবর্তন, বিদ্যুতায়ন | ইত্যাদির জন্য প্রয়ােজনীয় সাজ সরঞ্জাম ও যন্ত্রপাতি স্থাপন করার স্থান বা ক্ষেত্রকে বৈদ্যুতিক স্থাপনা বলে। বৈদ্যুতিক স্থাপনাসমূহের ব্যবহার উপযােগিতা বাড়ানাের জন্য নানাবিধ বৈদ্যুতিক উপকরণ ও সাজ-সরঞ্জামকে সুনির্দিষ্ট নিয়মে।


কখনাে এককভাবে আবার কখনাে বা Group ভিত্তিকভাবে স্থাপন করতে হয়। ব্যবহারের ক্ষেত্রবিশেষে এগুলাে ভবনের মধ্যে অথৰা ৰাইরে স্থাপিত হতে পারে। অভ্যন্তরীণ ওয়্যারিং ও ওভারহেড লাইন দুটিই বৈদ্যুতিক স্থাপনা হলেও প্রথমটি ঘরে এবং দ্বিতীয়টি বাইরে খােলা স্থানে স্থাপন করা হয়। এদের বৈশিষ্ট্য ও কাজের ধরনের উপর ভিত্তি করে উভয়ের সাগর প্রণালি ভিন্ন রকম হবে


বৈদ্যুতিক স্থাপনার ব্যাখ্যা

স্থাপনা বলতে কোনাে গৃহ, ভবন, কারখানা, কেন্দ্র বা প্রতিষ্ঠান যেখানে বৈদ্যুতিক কাজ সম্পাদনে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি, সাজ-সরঞ্জাম, অ্যাপ্লায়েন্স, ডিভাইস, উপকরণ, উপাদান, অংশসমূহ দ্রব্যসামগ্রা ত্র। সজ্জিত বা স্থাপিত অবস্থানকে বােঝায়। বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য জেনারেটর ও প্রাইম মুভার হল স্থান হতে অন্যস্থানে প্রেরণ করার জন্য পরিবহন লাইন, ভােল্টেজ ও কারেন্ট কমবেশি করার জন্য ট্রান্সফরম যন্ত্রপাতি স্থাপন, কলকারখানা, অফিস-আদালত ও বসতবাড়ির ওয়্যারিংসহ যাবতীয় কাজ বৈদ্যুতিক স্থাপনার আওতায় পড়ে সংক্ষেপে, বৈদ্যুতিক শক্তির সুষ্ঠু ব্যবহারের লক্ষ্যে, বিদ্যুৎ উৎপাদন, পরিবহন, বিতরণ, ভােল্টেজ ও কারেন্টের পিরবর্তন বিদ্যুতায়ন ইত্যাদির জন্য প্রয়ােজনীয় সাজসরঞ্জাম ও যন্ত্রপাতির সজ্জিত অবস্থানকে বৈদ্যুতিক স্থাপনা বলা হয়। অপরপক্ষে Electrical installation is an assembly of associated electrical equipments, such as machines, apparatus, wiring system etc. to fulfill a specific purpose with in consumer's premises. বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্র, পরিবহন লাইন, বিতরণ লাইন, সাব-স্টেশন, কল-কারখানা, ফ্যাক্টরি = অফিস-আদালত ও বসতবাড়ির ওয়্যারিং, স্ট্রিট লাইট, বিমানবন্দর, রেলওয়ে স্টেশন, শহর, বন্দর, ব্যবসা-বাণিজ্যকে ইত্যাদির বিদ্যুতায়ন ব্যবস্থা বৈদ্যুতিক স্থাপনা বলে গণ্য। বৈদ্যুতিক কার্য সম্পাদনের জন্য ব্যবহৃত বৈদ্যুতিক উপকরণ, সাজ-সরঞ্জাম ও যন্ত্রপাতির একক বা গ্রুপভিত্তিক সাজ-সজ্জা বিধিসম্মত স্থাপনাকে বৈদ্যুতিক স্থাপনা বলে।


বৈদ্যুতিক স্থাপনার প্রকারভেদ (List the Main Types of Installations)

বৈদ্যুতিক স্থাপনা বা ইলেকট্রিক্যাল ইনস্টলেশন প্রধানত তিন প্রকার। যথা:

(১) অভ্যন্তরীণ স্থাপনা (Indoor or Internal Installation)।

(২) অভ্যন্তরীণ স্থাপনা (Outdoor or External Installations)

(৩) অস্থায়ী স্থাপনা (Temporary Installation)


অভ্যন্তরীণ ও অনাভ্যন্তরীণ বৈদ্যুতিক স্থাপনার সংজ্ঞা:

দালান-কোঠা, ঘরবাড়ি, স্কুল-কলেজ, কলকারখানা ইত্যাদি গৃহাভ্যন্তরে স্থাপিত বৈদ্যুতিক সাজ-সরঞ্জাম, আসবাবপত্র, যন্ত্রপাতি, বৈদ্যুতিক ওয়্যারিং ইত্যাদি অভ্যন্তরীণ বৈদ্যুতিক স্থাপনা হিসেবে বিবেচিত হয়। এ স্থাপনা ব্যবস্থাপনায়, বৈদ্যুতিক সামগ্রী যথা : তার, কেবল, কভুইট, চ্যানেল, কেসিং, ক্লীট বাতি, পাখা, সুইচ, সকেট ইত্যাদি এবং এদের উপকরণসমূহ মূলত চার দেয়ালের ও সিলিং বা ছাদে স্থাপন করা হয়। আবার প্রয়ােজন হলে কোনাে কোনাে ক্ষেত্রে, আনুষঙ্গিক উপকরণগুলাে মেঝে, দেয়াল এবং সিলিং এর ভেতরে গেঁথে রাখা হয়। এ ব্যবস্থা গ্রাহকের আর্থিক সঙ্গতি, রুচি এবং অভিলাষ অনুযায়ী মূল উপাদানগুলাে বহির্ভাগে স্থাপন করা হয়। এ সমস্ত সরঞ্জাম গ্রাহকদের ব্যয়ে তাদের বাড়িতেই স্থাপিত হয় বিধায় এর মালিকানাও তাদের। বৈদ্যুতিক স্থাপনা গৃহাভ্যন্তরে না বাইরে স্থাপিত হবে তা প্রধানত নির্ভর করে প্রয়ােজনীয়তা ও উপযােগিতার উপর। তাছাড়া অনেক ক্ষেত্রে রুচি, সৌখিনতা, নিরাপত্তা ও আর্থিক সঙ্গতির উপর নির্ভর করে বৈদ্যুতিক স্থাপনা গৃহাভ্যন্তরে স্থাপিত হয়।


যে সকল স্থাপনায় বৈদ্যুতিক উপকরণ ও উপাদানগুলাে খােলা আকাশের নিচে মুক্ত-আঙ্গিনায় স্থাপন করা হয় তাকে অনাভ্যন্তরীণ বৈদ্যুতিক স্থাপনা বলে। এ স্থাপনায় কোনাে অবকাঠামাের প্রয়ােজন হয় না। এ সমস্ত স্থাপনার মালিকানা বিদ্যুৎ উৎপাদন ও সরবরাহকারি প্রতিষ্ঠানের। বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র, পরিবহন ও বিতরণ লাইন এবং এদের উপকরণসমূহ এ ধরনের স্থাপনার আওতাধীন, এ স্থাপনার প্রধান প্রধান উপাদানগুলাে হলাে

(১) ভারি ট্রান্সফরমার,

(২) ভারি সার্কিট ব্রেকার,

(৩) টাওয়ার,

(৪) পােল,

(৫) ইলেটর,

(৬) লাইটনিং অ্যারেস্টার,

(৭) কারেন্ট ট্রান্সফরমার (সিটি),

(৮) পটেনশিয়াল ট্রান্সফরমার (পিটি),

(৯) ভােল্টেজ রেগুলেটর,

(১০) অয়েল সার্কিট রিক্লোজার,

(১১) আইসােলেটর ইত্যাদি ।

এসৰ যন্ত্রপাতিগুলাে খােলা আকাশের নিচে স্থাপন করা হয় । এছাড়া কিছু বিশেষ বিদ্যুতায়ন প্রকল্প বহিরাঙ্গনে স্থাপন করা হয়। যেমন : স্ট্রিট লাইটিং, বিমান বন্দর ও রানওয়ের লাইটিং, ইয়ার্ড লাইটিং ইত্যাদি নাভ্যন্তরীণ বৈদ্যুতিক স্থাপনার উদাহরণ দেয়া হলাে :

(ক) বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র :

(১) ট্রান্সফরমার।

(২) সার্কিট ব্রেকার,

(৩) আইসােলেটর

(8) লাইটনিং অ্যারেস্টার

(৫) কারেন্ট ট্রান্সফমার

(৬) পটেনশিয়াল ট্রান্সফমার

(৭) ভােল্টেজ রেগুলেটর

(৮) ও.সি.আর।


(খ) পরিবহন লাইন :

(১) পােল/টাওয়ার।

(২) ইনসুলেটর

(৩) পরিবাহী

(৪) ক্রস আর্ম।


(গ) স্ট্রিট লাইটিং

(ঘ) বিমানবন্দরের রানওয়ের লাইটিং

(ঙ) লােকেশন লাইটিং

(চ) বন্দর লাইটিং

(ছ) ইয়ার্ড লাইটিং

(জ) স্টেডিয়াম ও খেলার মাঠের লাইটিং ইত্যাদি।


(৩) অস্থায়ী বৈদ্যুতিক স্থাপনা (Temporary electrical installation) :

অল্প কিছু সময় বা কিছু দিনের জন্য কোন কাজ সম্পাদনের নিমিত্তে বিদ্যুতায়নে সাধারণত এমন পদ্ধতি ব্যবহার করা হয় যাতে কাজ শেষে সেটি সহজে সরিয়ে ফেলানাে যায় এবং ব্যয় কম পড়ে। সমগ্র বিদ্যুতায়ন প্রক্রিয়াটি এমনভাবে করা হয় যাতে একবার বিদ্যুতায়নে ব্যবহৃত মালামাল পরপর ব্যবহার করা যায়। ভােলামাঠে আয়ােজিত অনুষ্ঠানে [যেমন- মেলা, প্রদর্শনী, সভা-সমাবেশ, উৎসব প্রভৃতির জন্য] বিদ্যুতায়ন, নির্মাণাধীন কোন স্থাপনার কাজ পরিচালনার জন্য বিদ্যুতায়ন, সাময়িক মেরামত কাজের জন্য বিদ্যুতায়ন প্রভৃতিতে অস্থায়ী ভাবে বিদ্যুতায়ন করা হয়ে থাকে। উল্লিখিত প্রকারভেদ ছাড়াও বৈদ্যুতিক স্থাপনাকে নিম্নলিখিতভাবে শ্রেণিবিন্যস্ত করা যায়। যথা:

(ক) বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র (Generating station)

(খ) বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র (Sub-station)

(গ) সঞ্চালন লাইন (Transmission line)

(ঘ) বিতরণ (Distribution)

(ঙ) বিদ্যুতায়ন ব্যবস্থা (Electrification system)

No comments

Theme images by chuwy. Powered by Blogger.