বৈদ্যুতিক বিধি-বিধান কোড Electrical Regulation Codes

বৈদ্যুতিক বিধি-বিধান কোড

বিদ্যুৎ উৎপাদন, পরিবহন, বিতরণ ও ব্যবহার করার সময় বিশেষভাবে সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়ােজন। আবার কোন কাৰ বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনা ঘটলে তা থেকে বাঁচার জন্য প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার প্রয়ােজন হয়। এ সকল ঝুঁকি এড়ানাের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক। নিরাপত্তার দিকে লক্ষ্য রেখে বিদ্যুৎ উৎপাদন, পরিবহন, সরবরাহ, বণ্টন এবং ব্যবহারের জন্য কতকগুলাে বিধি-নিষেধ তৈরি করা হয়েছে। সর্বক্ষেত্রে এ বিধি-নিষেধগুলাে মেনে চলা বাধ্যতামূলক। এ সকল বিধি-নিষেধকে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ বিধিবিধান বা সংক্ষেপে বি.ই রুলস (B.E Rules) বলা হয়। প্রয়ােজন হলে মাঝে মাঝে কাজ করার সময় শেষ সংস্করণের বিধিসমূহকে আইনসিদ্ধ বলে ধরে নেয়া হয়। বিদ্যৎ বিধিবিধানে বৈদ্যতিক স্থাপনার নিয়ম ও পদ্ধতির বিস্তারিত আলােচনা করা থাকে। যন্ত্রপাতিতে সংযােগ দেয়ার পদ্ধতি, Insulation মান, আর্থিং করার পদ্ধতি আর্থ রেজিস্টেন্সের মান, ইনসুলেশন রেজিস্টেন্সের মান, মেঝে হতে লােডের উচ্চতা, তারের ন্যূনতম সাইজ, লােডসমূহের মধ্যবর্তী ব্যবধান ইত্যাদি বিদ্যুৎ বিধিতে উল্লেখ থাকে ।

বৈদ্যুতিক বিধি-বিধান কোড

এ সকল নিয়মাবলি মেনে বৈদ্যুতিক স্থাপনা স্থাপন ও পরিচালনা করলে অধিকাংশ দুর্ঘটনা হতে রক্ষা পাওয়া যায়। জীবন্ত মানবদেহের ভিতর দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হলে জীব কোষগুলাে মারা যায় এবং মানুষের জীবনহানী ঘটে। মানবদেহের রােধ 0.1 M2 হতে 0.5 পর্যন্ত হয়ে থাকে। কিন্তু মানুষের শরীর ভেজা থাকলে রােধ 5k ohms এর কাছাকাছি হয়ে থাকে। অল্প ফ্রিকুয়েন্সির 1 mA হতে ৪ mA অল্টারনেটিং কারেন্ট প্রবাহিত হলে মানুষ তা সহ্য করতে পার কিন্তু এর তুলনায় ডিসি বেশি কারেন্ট প্রবাহিত হলে মানুষ সহ্য করতে পারে না। আবার মানবদেহের জন্য এসির তুলনায় ডিসি তুলনামূলকভাবে বেশি বিপদজনক হয়ে থাকে। আর মানবদেহের অন্য অংশের তুলনায় ত্বকের রােধ অপেক্ষাকৃত বেশি। বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি সন্তোজনকভাবে পরিচালনা, অগ্নিকাণ্ড এড়িয়ে চলা এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য বিদ্যুৎ বিধি প্রণীত হয়েছে। সকল শ্রেণির বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীকে অবশ্যই বিদ্যুৎ বিধিবিধান, প্রয়ােজনীয় সতর্কতা ও নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা সম্পর্কে যথেষ্ট ওয়াকিবহাল থাকতে হয়।


বাংলাদেশ বিদ্যুৎ আইনের বিধিসমূহ

(List the Main Electricity Rules of Bangladesh Electricity Act): বাংলাদেশ বিদ্যুৎ আইনের অন্তর্ভুক্ত প্রচলিত বিধিসমূহের মধ্যে প্রধান প্রধান বিধিসমূহ নিম্নে প্রদত্ত হলাে।

* অভ্যন্তরীণ ওয়্যারিং এর ক্ষেত্রে যে সকল বিধি অনুসরণীয় : রুল ১. গ্রাহকের বৈদ্যুতিক লাইন ও অন্যান্য সরঞ্জামাদির নিরাপত্তামূলক সতর্কতা :

(ক) সরবরাহকারীকে এই নিশ্চয়তা দিতে হবে যে তার মালিকানায় বা আয়ত্বাধীনে গ্রাহকের বাড়িতে স্থাপিত সকল বৈদ্যুতিক লাইন সরঞ্জামাদি ও যদু পাতি বৈদ্যতিকভাবে নিরাপদ অবস্থায় আছে এবং সেগুলাে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য উপযুক্ত।

(খ) গ্রাহকের বাড়িতে ভূগর্ভে কিম্বা নাগালের মধ্যে যে সমস্ত সরবরাহ লাইন স্থাপিত হবে, সেগুল্যে সরবরাহ কর্তৃক এমনভাবে | ইনসুলেটেড এবং সংরক্ষিত হবে যাতে লাইন সর্বদা বৈদ্যুতিক, যান্ত্রিক, রাসায়নিক বা অন্য কোন ক্ষয়-ক্ষতি হতে নিরাপদে থাকে।

প্রয়ােজনীয় কিছু তথ্যঃ ১ বৈদ্যুতিক চাপের শ্রেণি বিন্যাস বাংলাদেশে যে সমস্ত চাপে বিদ্যুৎ পরিবহন ও বিতরণ হয়, সেগুলােকে নিম্নরূপে শ্রেণিবিভাগ করা হয়েছে।


আরো পড়ুন বিদ্যুৎ ব্যবহারে সতর্কতা অবলম্বনের ১০টি উপায়


অতি উচ্চ চাপ (Extra High Voltage) :

(ক) অতি উচ্চ চাপ (Extra High Voltage) বলতে 1,32,000 ভােল্ট মানের সরবরাহ ভােল্টেজ (132KV) বা তদূর্ধ্ব ভােল্টেজকে বুঝায়।

(খ) উচ্চ চাপ (High Voltage) : উচ্চ চাপ বলতে 33,000 ভােল্ট (33KV) মানের সরবরাহ ভােল্টেজকে বুঝায়।

(গ) মধ্যম চাপ (Medium Voltage); মধ্যম চাপ বলতে 11,000 ভােল্ট (11KV) মানের সরবরাহ ভােল্টেজকে বুঝায়।

নিম্ন চাপ( Low Voltage): নিম্নচাপ বলতে 230/400 ভােল মানের সরবরাহ ভােল্টেজকে বুঝায়।


গ্রাহকের লােড ও সরবরাহ ভােল্টেজ (Consumers Load and Supply voltage):

(ক) নিম্নচাপ (L.T) সরবরাহ (230/400) ভােল্ট) ঃ

(অ) 7.5 কিলােওয়াট পর্যন্ত অনুমােদিত লােডের ক্ষেত্রে সরবরাহ ভােল্টেজ হবে I ফেজ 230 ভােল্ট 50c/s।

(আ) 7.5 কিলােওয়াটের উধ্ব হতে 50 কিলােওয়াট পর্যন্ত অনুমােদিত লােডের ক্ষেত্রে সরবরাহ হবে 3 ফেজ, 400 ভােল্ট, 50c/s।

(খ) মধ্যম চাপ সরবরাহ (11 কেভি) ও 50 কিলােওয়াটের উর্ধ্ব হতে 5 মেগাওয়াট পর্যন্ত অনুমােদিত লােভের ক্ষেত্রে সরবরাহ ভােল্টেজ হবে 50c/s, তিনফেজ,11000 ভােল্ট।

গ) উচ্চ চাপ সরবরাহ (33 কেভি) ও সাধারণতভাবে 5 মেগাওয়াট এর উর্ধ্ব হতে 15 মেগাওয়াট পর্যন্ত অনুমােদিত লােডের ক্ষেত্রে সরবরাহ ভােল্টেজ হবে 33,000 ভােল্ট।

(ঘ) অতি উচ্চ চাপ সরবরাহ (132 কেভি) ও সাধারণভাবে চুক্তিবদ্ধ লােড 15 মেগাওয়াট এর উর্ধ্বে হলে 1,32,০০০ ভােল্টে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে। সংযােজিত লােড (Connected Load) ; সংযােজিত লােড বলতে গ্রাহক প্রাঙ্গনে সংযুক্ত কিংবা সংযােগ করা হবে সে সব বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির প্রস্তুতকারক কর্তৃক উল্লিখিত ক্ষমতার সমুদয় যােগফলকে বুঝাবে। সংযােজিত লােভকে কিলােওয়াটে প্রকাশ করতে হবে। যদি ক্ষমতা কেভিএ (KVA) তে থাকে তাহলে সেটাকে পাওয়ার ফ্যাক্টর 0.8 দ্বারা গুণ করে কিলােওয়াটে রূপান্তর করতে হবে। আবার যদি ক্ষমতা অশ্বশক্তিতে থাকে তাহলে সেটাকে 0.746 দ্বারা গুণ করে এবং 0.9 (দক্ষতা) দ্বারা ভাগ করে কিলাে ওয়াটে রূপান্তর করতে হবে।


অনুমােদিত লােড (Approved Load): অনুমােদিত লােড বলতে কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গ্রাহক প্রাঙ্গনে বিদ্যুৎ সরবরাহ অনুমােদনের সময় উল্লিখিত লােডকে বুঝায়। সংযােজিত লােড অনুমােদিত লােড অপেক্ষা বেশি হতে পারবে না।

চুক্তিবদ্ধ লােড (Contract Load) : চুক্তিবদ্ধ লােড বলতে 15 মিনিট বা ততােধিক সময়ব্যাপী স্থায়ী, কিলােওয়াটে বিদ্যুৎ শক্তির সর্বোচ্চ যুগপৎ চাহিদাকে (যা গ্রাহকের সাথে বাের্ডের চুক্তির মাধ্যমে নির্ধারিত হয়) বুঝায়। চুক্তিবদ্ধ লােড অনুমােদিত লােড অপেক্ষা বেশি হতে পারবে না।

পিক আওয়ারস (Peak Hours): পিক আওয়ারস বলতে ১৭ঃ০০ টা (বিকাল ৫ঃ০০টা) হতে ২৩ঃ০০টা (রাত ১১ টা) পর্যন্ত সময়কে বুঝায়।

অফ-পিক আওয়ারস (Off-Peak Hours): অফ পিক আওয়ারস বলতে ২৩ঃ০০টা (রাত ১১টা) হতে ১৭ঃ০০টা (বিকাল ৫ঃ০০টা), পর্যন্ত সময়কে বুঝায়।

পাওয়ার ফ্যাক্টর শুদ্ধকরণ (Power factor correction) : বিদ্যুৎ সরবরাহের শর্ত অনুযায়ী মাসিক গড় পাওয়ার ফ্যাক্টর 0.95 হতে 1 এর মধ্যে রাখতে হলে মধ্যম চাপ, উচ্চচাপ ও অতিউচ্চচাপের গ্রাহকদের ক্ষেত্রে গড় পাওয়ার ফ্যাক্টর 0.95 ল্যাগ এর নীচে রাখার কারণে পাওয়ার ফ্যাক্টর শুদ্ধকরণ চার্জ প্রযােজ্য হবে। পাওয়ার ফ্যাক্টর 0.95 শুদ্ধিকরণ গুণিতক = গ্রাহক প্রান্তে পরিমাপের পর গড় পাওয়ার ফ্যাক্টর। উপরিউক্ত গুণিতকটি রেকর্ডকৃত কিলােওয়াট ঘন্টার গুণিতক হিসাবে ব্যবহার করে বিলের ইউনিট নির্ধারণ করা হয়। যদি সরবরাহ পয়েন্টে পাওয়ার ফ্যাক্টর 0.95 এর উপর হয় তাহলে রেকর্ডকৃত এনার্জি অনুযায়ী গ্রাহকের বিল করা হয়।


পরিদর্শন ফি (Inspection fee) : স্থাপনা : (ক) নতুন স্থাপনা বা বর্তমান স্থাপনার সম্প্রসারণের নাই প্রথম পরীক্ষা বা পরিদর্শনের জন্য চার্জ

(খ) স্থাপনায় কোন ত্রুটি বা সরবরাহের শর্তাবলি না মানার কারণে পরবর্তী প্রতিবার পরীক্ষা বা পরিদর্শনের জন্য গ্রাহককে নিম্নোক্ত চার্জ অগ্রিম পরিশােধ করতে হয় ।

(অ) 7.5 কিলােওয়াট পর্যন্ত ট ঃ 50.00

(আ) 7.5 কিলােওয়াট এর উর্ধ্বে এবং 50 কিলােওয়াট এর নিচে টঃ 100.00

(ই) 50 কিলােওয়াট এর উর্ধ্বে টঃ1000.00

(গ) পারিপার্শ্বিক অবস্থা অনুসারে যতটা সম্ভব গ্রাহককে তার বাড়িতে সরবরাহকারীর মালিকানায় স্থাপিত যন্ত্রপাতির নিরাপদ রক্ষণাবেক্ষণের জন্য সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

(ঘ) গ্রাহককে তার আয়তাধীন যন্ত্রপাতি সম্পর্কে নিশ্চয়তা প্রদান করতে হবে।


গ্রাহকের বৈদ্যুতিক সাজ-সরঞ্জাম ও অ্যারায়েলের যান্ত্রিক ও বৈদ্যুতিক ব্যবহার্য যন্ত্রপাতিগুলাে অবশ্যই সরবরাহ লাইনের উপযােগী হবে এবং এগুলাের যান্ত্রিক ও বৈদ্যুতিক ক্ষমতা পর্য এদের নির্মাণ, স্থাপন, সংরক্ষণ, পরিচালন ও বক্ষণের সময় বিপদ নিবারিত হয়। গ্রাহকের বৈদ্যুতিক লাইনে কাট-আউট লাগানাে প্রসঙ্গে : (ক) সরবরাহকারীকে গ্রাহকের বাড়িতে আর্থ তার অথবা আর্থড নিউট্রাল এম " আথ তার অথবা আর্থড নিউট্রাল তার অথবা আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবলের বহিরাবরণের আর্থ তার ব্যতীত প্রতিটি সরবরাহ লাইনের জন্য একটি করে কাট আউটের ব্যবস্থা নাগালের মধ্যে করতে হবে। এই কাটআউট পর্যাপ্ত পরিমাণে আচ্ছাদিত অদাহ্য পাত্রে রাখা থাকবে যেখানে একটি সরবরাহ লাইন হতে একাধিক গ্রাহককে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা করা হবে, সেখানে প্রতিটি গ্রাহকের জন্য সাধারণ। সরবরাহ লাইনের সংযােগস্থলে আলাদাভাবে একটি করে কাটআউটের বন্দোবত - সাথ তার অথবা আর্থড নিউট্রাল তার অথবা আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবলের বহিরাবরণের আর্থ তার সরবরাহ লাইনের মালিককে একটি উপযুক্ত কাট আউট দ্বারা ঐ লাইনকে রক্ষা করতে হবে।. যেখানে ইনসুলেশনবিহীন পরিবাহী তার ঘরের ভিতরে থাকবে। এক্ষেত্রে পরিবাহীসমূহের মালিককে

(ক) এরূপ নিশ্চয়তা দিতে হবে যাতে তা নাগালের বাইরে থাকে।

(খ) প্রয়ােজনমত এগুলাে নিষ্ক্রিয় করার জন্য সহজে নাগালে পাওয়া যায় এমন জাগায় সুইচ বসাতে হবে।

(গ) প্রয়ােজন হলে পরিদর্শককে জানিয়ে এরূপ অন্যান্য স্থানেও নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।


গ্রাহকের বৈদ্যুতিক অবস্থার পরীক্ষা :

ক) নতুন অথবা অতিরিক্ত বিদ্যুৎ সরবরাহের ক্ষেত্রে আবেদন পাওয়ার পর এবং সরবরাহ লাইন সংযুক্ত কিম্বা পুনঃ সংযােজনের আগে বিদ্যুৎ সরবরাহকারী আবেদনকারীর বৈদ্যুতিক স্থাপনা পরিদর্শন ও পরীক্ষা করবেন। পরীক্ষার ফলাফল সরবরাহকারীকে পরিদর্শক কর্তৃক অনুমােদিত ফর্মে লিপিবদ্ধ করতে হবে।

(খ) যদি এই পরিদর্শন ও প্রাপ্ত ফলাফলে সরবরাহকালীন বৈদ্যুতিক স্থাপনায় বিপদ সম্পর্কে নিশ্চিত হন, তবে তা নিরাপদ করতে প্রয়ােজনীয় সংশােধনের জন্য আবেদনকারীকে লিখিত নােটিশ দেবেন। সংশােধনী সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত সরবরাহকারী সরবরাহ লাইন যুক্ত বা পুনরায় সংযুক্ত করতে অপারগতা প্রকাশ করতে পারেন। আর্থিং বিষয়ক সতর্কতা ; কোন পরিবাহী বা যন্ত্রপাতি হাত দিয়ে স্পর্শ করার আগে তা আর্থিং করে বা ডিসচার্জ করে নিতে হবে এবং যখন বিদ্যুৎ কর্মীরা সেখানে কর্মরত অবস্থায় থাকে, তখন হঠাৎ কিম্বা অসাবধানতাবশত কোন পরিবাহী বা যন্ত্রপাতি যাতে চার্জিত হতে না পারে সেজন্য পর্যাপ্ত সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

বৈদ্যুতিক কর্মীর কাজের অধিকার প্রসঙ্গে : কোন ব্যক্তি কোন বিদ্যুৎবাহী লাইনে বা যন্ত্রপাতিতে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কাজ করার অধিকার প্রাপ্ত না হলে এবং পরিদর্শক কর্তৃক অনুমােদিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছাড়া কাজ করতে পারবে না এবং এরূপ। ব্যক্তিকে এধরনের কাজে কেউ সহায়তা করতে পারবে না। সুইচ, সকেট, বাতির মাউন্টিং হাইট এবং পাওয়ার ও লাইটিং সার্কিট ও সাব-সার্কিট সম্পতি, (ক) সুইচ বাের্ড ঘরের মেঝে হতে 1.25 মিটার উপরে থাকবে।

plug 3-পিন টাইপের হতে হবে এবং আর্থ পিনকে আর্থের সাথে স্থায়ীভাবে যুক্ত করতে হবে। সকল পাওয়ার সাব-সাকিটে 3-পিন, 15A এবং লাইটিং সাব-সার্কিটে 3-পিন , সকল ইনক্যাভিসেন্ট ল্যাম্প মেঝের তলদেশ হতে 2.5 মিটার উপরে ঝুলাতে হবে। বাথরুমে 1.30m কোন সকেট আউটলেট স্থাপন করা যাবে না। কক্ষের সকেট আউটলেট মেঝের 25 সে.মি. অথবা 1.30 মিটার উপরে বসাতে হবে। জােড় 200 ওয়াটের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে এবং দুটির বেশি সকেট আউটলেট প্রতিটি পাওয়ার সাব-সার্কিটের লােড 3000 ওয়াটের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে থাকতে পারবে না। সাব সার্কিটের লােড 800 ওয়াটের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে এবং দশটির বেশি পয়েন্ট থাকতে পারবে না।

সার্কিট ও যন্ত্রপাতিসমূহ এমনভাবে বসাতে হবে যাতে তাদের কোন অংশ অতিরিক্ত ভােল্টেজে চাজিত না হয়। সকল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, উপকেন্দ্র এবং Switching স্টেশনে প্রবাহজনিত আগুন নিনির্বাপক যন্ত্র ছাড়াও আগুন নেভানাের কাজে ব্যবহারের জন্য পরিষ্কার শুকনাে বালি ভর্তি বালতি নেভানাের উপযােগী অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র ছাড়াও আগুন নেভানাে, আকর্ষক চিহ্ন দিয়ে সুবিধামত জায়গায় রাখতে হবে।

*

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post